ফেসবুক কর্মীদের এবার মেটামেটস (Metamates) ডাকা হবে বলে জানালেন সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মার্ক জুকারবার্গ।

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest

সম্প্রতি ফেসবুকের নাম বদলে করা হয়েছে মেটা। এই মেটার অধীনেই বর্তমানে পরিচালনাধীন ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রাম। সেই সূত্রে ফেসবুক কর্মীদের এবার মেটামেটস (Metamates) ডাকা হবে বলে জানালেন সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মার্ক জুকারবার্গ।

মার্ক জুকারবার্গ জানান, এবার থেকে নতুন একটি নামে ডাকা উচিত সবাইকে। এর জন্য একটি মোটো ঠিক করেছেন তিনি, ‘Meta Metamates Me’। নয়া ঘোষণায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে টেক জায়েন্ট।

সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মার্ক জুকারবার্গ তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন, ‘Meta Metamates Me’ আমাদের সংস্থা এবং লক্ষ্যে ভালো পরিচালক হওয়ার একটি চিহ্ন। এটি আমাদের যৌথ সাফল্য এবং সতীর্থ হিসাবে একে অপরের প্রতি আমাদের দায়িত্ববোধ নির্দেশ করে। পুরো বিষয়টি আমাদের সংস্থা এবং একে অপরের যত্নের সাথে আবদ্ধ। দিনের শেষে আপনি ওয়েবসাইটে কী মতামত রাখলেন শুধু তা নয়, প্রতিদিন এক অপরকে দায়বদ্ধ রাখা জরুরি। এই মুহূর্তে বিষয়টি বিবেচনা করে সবাইকে উত্‍সাহিত করা উচিত। এর পাশাপাশি মার্ক জুকারবার্গ তার পোস্টে উল্লেখ করেন শুধু দ্রুত এগিয়ে গেলে হবে না সবাইকে সাথে নিয়ে এগোতে হবে।

কিন্তু এই মেটামেটস শব্দটি এলো কোথা থেকে?

কতৃপক্ষ জানিয়েছে, শব্দটি বিখ্যাত আমেরিকান লেখক এবং বিজ্ঞানী ডগলাস হফস্ট্যাডটারের সৃষ্টি। ফেসবুকের নাম বদলে মেটা হওয়ার পর একজন কর্মচারী তাঁকে ই-মেইল করে আবেদন করেন কিছু সৃষ্টিশীল আইডিয়া দেওয়ার জন্য। কতৃপক্ষ আরও জানায়, এই শব্দটির আইডিয়া একটি নৌ ব্যাকাংশ থেকে নেওয়া হয়েছে যা ইনস্টাগ্রামেও বেশ কিছুদিন ব্যবহার হয়েছিল ‘Ship Shipmates Self’। প্রসঙ্গত, শুধু ফেসবুক নয় গুগলও তাদের কর্মচারীদের ‘Googlers’ এবং মাইক্রোসফট তাদের কর্মচারীদের ‘Microsofties’ বলে অভিহিত করে।

সম্পর্কিত পোস্ট