PMAY এবার কড়া পদক্ষেপ কেন্দ্র সরকারের | Modi vs Mamata | Pradhan Mantri Awas Yojana- বাড়ি তৈরি করতে না পারলে আর্থিক জরিমানার

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest

এবার কড়া পদক্ষেপ কেন্দ্র সরকারের। এবার থেকে বাংলার যে সব বাসিন্দারা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায়(Pradhan Mantri Awas Yojna) বাড়ি তৈরি করার সুযোগ পাবেন তাঁরা তাঁ যদি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তা তৈরি করতে না পারেন তাহলে তাদের আর্থিক জরিমানার(Penalty) মুখে পড়তে হবে। বর্তমা র্ত নে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় প্রত্যেক উপভোক্তা ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা করে পান। প্রথম কিস্তি বাবদ তাঁদেতাঁ র ৬০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় কিস্তিতে ৫০ হাজার টাকা ও তৃতীয় তথা শেষ কিস্তিতে দেওয়া হয় ১০ হাজার টাকা। এছাড়াও প্রতি উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে একশো দিনের কাজে ৯০টি শ্রমদিবস বাবদ ২২৩ টাকা করে মোট ২০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এই টাকা থেকেই এবার থেকে জরিমানার অর্থ কের্থ টে নেওয়া হবে বলে রাজ্য সরকারকে জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন মোদি সরকার কেন্দ্রের সেই সিদ্ধান্তের কথা আবার নবান্ন থেকে সব জেলার প্রশাসনের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে ‘পেনাল্টি প্রভিশন’ নামের কপির মাধ্যমে। বাংলার বুকে হামেশাই অভিযোগ উঠেছে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অর্থ বরাদ্দ করা হয়ে গেলেও উপভোক্তারা ঠিক সময়ে সেই বাড়ি তৈরি করেন না। এমনকি অনেকে সেই টাকা অন্য খাতে খরচও করে ফেলেন। এই ঘটনা রুখতেই কেন্দ্র সরকার এবার কড়া মনোভাব নিয়েছে। কেন্দ্রের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এবার থেকে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় বাড়ি তৈরি করতে দেরি হলেই উপভোক্তাপিছু প্রতি মাসে ১০ থেকে ২০ টাকা পর্যন্ত কেটে নেওয়া হবে। প্রতিটি আর্থিক বছরে প্রত্যেক জেলাকে নির্দিষ্ট সংখ্যক বাড়ি তৈরির টার্গেট দেওয়া হয়। সেই টার্গেট দেওয়ার মুহূর্ত থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। বাড়ি তৈরির কাজ শেষ হওয়ার পর ছবি তোলা পর্যন্তর্য মোট ছ’টি স্তরে জরিমানা হতে পারে। কেন্দ্রের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, টার্গেট দেওয়ার দিন থেকেই জিও ট্যাগিং, অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের কাজ শুরু করতে হবে। ওইদিন থেকে কাজ শুরু না হলে প্রথম ৩০ দিনের জন্য প্রতি উপভোক্তার জন্য ১০ টাকা কাটা যাবে। তারপরের মাস থেকে ২০ টাকা হারে আর্থিকর্থি দণ্ড চাপবে। পাশাপাশি ওই নির্দেশিকায় এটাও বলা হয়েছে, এবার থেকে উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে প্রথম কিস্তির টাকা ঢোকার পর সাতদিনের মধ্যে কাজ শুরু হওয়া চাই। তা না হলে প্রতি সপ্তাহে প্রতিটি বাড়ির জন্য ১০ টাকা করে কাটা যাবে। প্রথম কিস্তি পাওয়ার তিন মাসের মধ্যে দ্বিতীয় কিস্তির টাকা দেওয়া হয়। তিন মাস পর থেকে দ্বিতীয় কিস্তির টাকার কাজ না হলে প্রতি মাসে ১০ টাকা হারে কাটা যাবে। একইভাবে তৃতীয় কিস্তির টাকা পাওয়ার দু’মাসের মধ্যে কাজ করতে হবে। তা না হলে প্রতি মাসে ১০ টাকা হারে কাটা যাবে। প্রতিটি ধাপে বাড়ির ছবি তুলে আপলোড করতে হয়।

সম্পর্কিত পোস্ট